আগামি ০১.০২.২০২৪ তারিখ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের দ্বাদশ শ্রেণির নির্বাচনী পরীক্ষা আরম্ভ হবে। সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের ৩১.০১.২০২৪ তারিখের মধ্যে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা পরিশোধ করে প্রবেশপত্র সংগ্রহ পূর্বক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে নির্দেশ দেয়া হলো। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রমে অনলাইন আবেদন চলছে। অনলাইন আবেদনের সময়সীমা : ২২ জানুয়ারি ২০২৪ হতে ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখ রাত ১২.০০ টা পর্যন্ত। ২০১৯-২০ সেশনে ২০২২ সালের অনার্স ৩য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণ আগামি ২৪.০১.২০২৪ তারিখ থেকে ৩০.০১.২০২৪ তারিখ পর্যন্ত।
Breaking News
ইতিহাস
নাসিরাবাদ কলেজ বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তর ঐতিহ্যবাহী বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ শিক্ষাবিদ আলহাজ রিয়াজ উদ্দিন আহমাদের (১৯০৬ খ্রিস্টাব্দ ১৯৯১ খ্রিস্টাব্দ) নিরলস পরিশ্রম ও সুদক্ষ তত্ত্বাবধানে ১৯৪৮ সালে প্রায় ১০ একর জমির উপর এ প্রতিষ্ঠানটি প্রথমে ইসলামিক ইন্টারমিডিয়েট কলেজ রূপে আত্মপ্রকাশ করে। তারপর ১৯৫৬ সালে সাধারণ উচ্চমাধ্যমিক কলেজে, ১৯৫৯ সালে ডিগ্রি কলেজে এবং ২০১০ সালে অনার্স পর্যায়ের কলেজে পরিণত হয়। বর্তমানে এ কলেজে উচ্চমাধ্যমিক, ডিগ্রি পাস ও অনার্স কোর্স অত্যন্ত সাফল্যের সঙ্গে পরিচালিত হচ্ছে এবং প্রায় ছয় হাজার শিক্ষার্থী নিয়মিত পড়াশোনার করার সুযোগ লাভ করছে। ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান নাসিরাবাদ কলেজ,ময়মনসিংহ এর সুখ্যাতির মূলে রয়েছে শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক ও কর্মচারীবৃন্দের নিরলস প্রচেষ্টা এবং সুদক্ষ গভর্নিং বডির সার্বিক তত্ত্বাবধান। এখানকার শিক্ষার পরিবেশ, পাঠদানের মান ও পরীক্ষার ফলাফল সর্বদাই সন্তোষজনক। 

বর্তমানে এ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন প্রায় একশত শিক্ষক-কর্মচারী। তাদের কর্মদক্ষতা সর্বদাই প্রশংসনীয়। এ প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা লাভ করে অগণিত শিক্ষার্থী আজ নানা কর্মক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত, অনেকে দেশবরেণ্য ব্যক্তি হিসেবে রেখেছেন এবং রেখে চলেছেন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান। উনসত্তুরের গণঅভ্যুত্থানে শহিদ আলমগীর মনসুর ছিলেন এ কলেজেরই একজন মেধাবী ছাত্র। ১ জানুয়ারি, ১৯৪৮ ঢাকার ধামরাইয়ের কেলিগ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। । শহিদ আসাদের মৃত্যুর প্রতিবাদে ও আইয়ুব খানের পতনের দাবিতে মিছিল করার সময় ১৯৬৯ সালের ২৪ জানুয়ারি ময়মনসিংহ শহরে পুলিশের গুলিতে তিনি শহিদ হন। প্রতিষ্ঠাকাল হতে অদ্যাবধি যে সকল শিক্ষকের অবদানে এ প্রতিষ্ঠানটি সুখ্যাতির দিগন্ত বিস্তৃত করে আছে, তাঁদের মধ্যে স্বাধীনতা ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত জাতীয় বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক যতীন সরকার, মরণোত্তর স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত জাতীয় বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক গোলাম সামদানী কোরায়শী । এ ছাড়াও এ কলেজে অধ্যাপনা করেছেন অধ্যাপক মুহম্মদ রিয়াজুল ইসলাম, অধ্যাপক আনোয়ারুল হাকিম, অধ্যাপক রাহাত খান, অধ্যাপক রফি উদ্দিন আহমদ, অধ্যাপক মুহম্মদ আব্দুল হামিদ, অধ্যাপক মীর আব্দুল মালেক, অধ্যাপক জীবন চন্দ্র দাস, অধ্যাপক হিমাংসু শেখর সাহা, অধ্যাপক মানিক লাল সাহা প্রমুখ । 

বর্তমানে এ কলেজে চালু রয়েছে উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণিতে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখা; স্নাতক পাস কোর্সে বিএ, বিবিএস, বিএসসি ও বিবিএ। এ ছাড়াও চালু আছে (১) বাংলা (২) অর্থনীতি (৩) রাষ্ট্রবিজ্ঞান (৪) সমাজকর্ম (৫) ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি (৬) হিসাবজ্ঞিান (৭) ব্যবস্থাপনা (৮) মার্কেটিং (৯) মনোবিজ্ঞান ও (১০) গণিত বিষয়ে অনার্স ও ৪ টি বিষয়ে মাস্টার্স ফাইনাল 1(বাংলা (2) রাষ্ট্রবিজ্ঞান (৩) হিসাববিজ্ঞান (৩) ব্যবস্থাপনা  পাশাপাশি এ কলেজে চালু রয়েছে সহপাঠক্রমিক কার্যক্রম । রয়েছে রোভার স্কাউট, নাসিরাবাদ কলেজ সাংস্কৃতিক ফোরাম ও স্বেচ্ছায় রক্তদাতা শিক্ষার্থীদের সংগঠন বন্ধন। শিক্ষানুরাগী ও শিক্ষাবান্ধব ব্যক্তিত্ব কলেজ গভনির্ং বডির বর্তমান সভাপতি জনাব মোঃ আমিনুল হক শামীম (সিঅইপি) এর সুদক্ষ তত্ত¡াবধানে নাসিরাবাদ কলেজ উন্নতির শিখরে এগিয়ে চলেছে। প্রতিষ্ঠাকাল হতে অদ্যাবধি এ কলেজে স্থায়ী অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেছেন ৯ জন অধ্যক্ষ । বর্তমান অধ্যক্ষ জনাব আহমেদ শফিক ১১.১১.২০১৯ তারিখ হতে অদ্যাবধি অত্যন্ত দক্ষতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর তত্ত্বাবধানে নাসিরাবাদ কলেজ নতুন মাত্রায় এগিয়ে চলছে । সভাপতির বাণী
সভাপতির বাণী
...
সভাপতির বাণী

ব্রহ্মপুত্র নদবিধৌত মহুয়-মলুয়ার দেশ নামে খ্যাত শিক্ষার নগরী ময়মনসিংহের একটি ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ নাসিরাবাদ কলেজ । ইতোমধ্যে এ প্রতিষ্ঠানটি নানা সমস্যা কাটিয়ে মসৃণ পথে এগিয়ে যেতে শুরু করেছে ।

প্রতিষ্ঠাকাল হতেই এ প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান অত্যন্ত সন্তোষজনক । এ কলেজের দুজন সাবেক শিক্ষক অধ্যাপক যতীন সরকার এবং অধ্যাপক গোলাম সামদানী কোরায়শী জাতীয় পদকে ভূষিত হয়েছেন; একজন জীবদ্দশায়, আরেকজন মরণোত্তর । দু’জনই এ কলেজকে গৌরবান্বিত করেছেন । বর্তমানে যে সকল শিক্ষক এ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন, তাঁদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় কলেজটি আরো সমৃদ্ধ হচ্ছে । ইতোমধ্যে এ কলেজে উচ্চমাধ্যমিক ও ডিগ্রি পাস কোর্সের পাশাপাশি দশটি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করা হয়েছে । বর্তমান গভর্নিং বডি কলেজটির অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ শিক্ষার মানোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে ক্রমাগত । আমাদের প্রত্যাশা- গভর্নিং বডি, সুদক্ষ শিক্ষকমন্ডলী এবং শিক্ষার্থী ও সম্মানিত অভিভাবকবৃন্দের যৌথ প্রয়াসে অচিরেই এ কলেজটি বাংলাদেশের একটি আদর্শ কলেজে পরিণত হবে।

অধ্যক্ষের বাণী
...
আহমেদ শফিক

ইতিহাসের পথ পরিক্রমায় নাসিরাবাদ কলেজ, ময়মনসিংহ আজ দেশের প্রাচীনতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটি। ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠানটি সুখ্যাতির মূলে রয়েছে সুদক্ষ গভর্নিং বডি, মেধাবী ও যোগ্যতাসম্পন্ন শিক্ষকমণ্ডলী এবং কঠোর নিয়মানুবর্তিতা। যুগের চাহিদা পূরণের জন্যে আধুনিক ও বাস্তবসম্মত পাঠদান পদ্ধতি চালু করার লক্ষ্যে উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে বোর্ড ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক নির্ধারিত সিলেবাসকে বিভিন্ন ধাপে বিন্যস্ত করে পরীক্ষা গ্রহণ করা হচ্ছে এবং যথাসম্ভব দ্রুতততর সময়ে ফলাফল প্রকাশ করে অভিভাবকের কাছে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রীর পাঠোন্নতির লক্ষ্যে সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালনের জন্যে গ্রুপ টিচার নিযুক্ত করা হয়েছে ।

প্রতিষ্ঠাকাল হতেই এ প্রতিষ্ঠানটি শিক্ষা বিস্তার করে এ অঞ্চলের শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত । আগামি দিনগুলোতে নাসিরাবাদ কলেজের পাঠদানপদ্ধতির গুণগত মান আরো বৃদ্ধি করে সকল ক্ষেত্রে আরো শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা প্রতিষ্ঠা করে আরেকটি নতুন যুগ সূচিত হবে বলে আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস।

শিক্ষক এবং কর্মচারী
...